বুধবার, ২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ | ১১ই ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

Logo
Print

একাদশে দুটি পরিবর্তন আনছে বাংলাদেশ!

প্রকাশের সময়: ১০:১২ পূর্বাহ্ণ - সোমবার | জানুয়ারি ২৫, ২০২১

currentnews

সিরিজ এরই মধ্যে পকেটে এসে গেছে। হাতে এখনও এক ম্যাচ বাকি। এবার হোয়াইটওয়াশের হাতছানি টাইগারদের সামনে। পাশাপাশি তিন ম্যাচ জিতলে ‘তিন দশে তিরিশ’ পয়েন্ট যোগ হবে বিশ্বকাপ সুপার লিগের টেবিলে। এই পয়েন্টই ২০২৩ সালের ওয়ানডে বিশ্বকাপে সেরা ৮ দলে থাকায় প্লাস পয়েন্ট হিসেবে বিবেচিত হবে।

এ কারণে সোমবার (২৫ জানুয়ারি) সোমবার ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে তৃতীয় ও শেষ ওয়ানডেতে জয়টি খুব দরকার বাংলাদেশের। চট্টগ্রামে তামিম বাহিনী জিততে মরিয়া।

খেলার ২৪ ঘণ্টা আগে আজ টাইগার অধিনায়ক তামিম ইকবালও ‘জয়ই’ শেষ কথা বলে মন্তব্য করেছেন। তবে পাশাপাশি দলে কিছু রদবদলের কথাও শোনা গেছে তামিমের কন্ঠে, ‘আমাদের সামান্য কিছু পরিবর্তন আসতে পারে।’

এখন প্রশ্ন হলো, কী সেই রদবদল? সামান্য কিছু বলতে আসলে কি বুঝিয়েছেন তামিম? ওদিকে প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নুও আগেভাগেই চট্টগ্রামে শেষ ওয়ানডেতে একাদশে পরিবর্তনের আভাস দিয়েছেন। আভাস বললে কমই বলা হবে।

সোমবার সাথে আলাপে প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নু বলেই দিয়েছেন, অলরাউন্ডার সাইফউদ্দীন খেলবে চট্টগ্রামে। এর বাইরে বড় ধরনের পরিবর্তনের সম্ভাবনা খুব কম বলেও জানিয়েছিলেন নান্নু।

সাইফউদ্দীনের সাথে বড়জোর আর একজনের অন্তর্ভুক্তি ঘটতে পারে, এমন সম্ভাবনার কথাও শুনিয়েছেন নান্নু। এখন প্রশ্ন হলো তিনি কে? তবে কি অভিষেকের অপেক্ষায় থাকা দুই তরুণ শেখ মেহেদি হাসান কিংবা শরিফুল ইসলামের মধ্যে একজনের ওয়ানডে ক্যারিয়ার শুরু হতে পারে চট্টগ্রামে? নাকি সাইফউদ্দীনের সাথে অন্য কাউকে দেখা যাবে একাদশে?

সেটা নিয়েই জল্পনা-কল্পনা। রাজ্যের গুঞ্জন। আজ সন্ধ্যার পরের খবর হলো, দুই তরুণ শরিফুল আর মেহেদি হাসান নন, সাইফউদ্দীন ঠিকই ফিরবেন চট্টগ্রামের ওয়ানডের একাদশে। কাল সোমবার জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে এ পেস বোলিং অলরাউন্ডারের সাথে একাদশে দেখা যেতে পারে পেসার তাসকিন আহমেদকেও।

প্রধান নির্বাচক মিনহ্জুল আবেদিন নান্নুর ব্যাখ্যা, ‘আমাদের পরীক্ষিত পারফরমারদের মধ্যে যাদের খেলানোর সুযোগ হয়নি, তাদের আগে দেখে নেই। তারপর না হয় নতুনদের সুযোগ দেয়ার প্রশ্ন।’

তাসকিনকে খেলানোর পরিষ্কার আভাস তামিমের কন্ঠেও ছিল। আজ ভিডিও বার্তায় একাদশ সম্পর্কে বলতে গিয়ে নতুন কারো অভিষেকের কথা বলেননি টাইগার অধিনায়ক। বরং এমন কারো অন্তর্ভুক্তির কথা বলেছেন, যারা আগে খেলেছেন। প্রতিষ্ঠিত এবং ম্যাচ জেতানোর কৃতিত্ব আছে।

jagonews24

তামিম বলেন, ‘কিন্তু আমি নিশ্চিত করতে পারি, যারাই একাদশে আসবে তারা ম্যাচ উইনার। তারা অতীতে যখনই খেলেছে ভালো খেলেছে।’

বলার অপেক্ষা রাখে না, সাইফউদ্দীনের সাথে ১৮ জনের দলে আরেকজন পারফরমারই আছেন, যিনি আগেও খেলেছেন এবং ম্যাচ জেতানো বোলিংয়ের কৃতিত্বও দেখিয়েছেন। তিনি আর কেউ নন, তাসকিন আহমেদ।

বাঁ-হাতে বুড়ো আঙ্গুল আর তর্জনির মাঝখানে ব্যাথা পেয়েছিলেন তাসকিন। অনুশীলনে বোলিংয়ের ফলো থ্রু’তে ওই জায়গা ফেটে গেলে কয়েকটি সেলাই দিতে হয়েছে। সেই সেলাই শুকিয়ে গেলেও তাসকিনকে খেলানোর ঝুঁকি নেয়নি টিম ম্যানেজমেন্ট।

বলার অপেক্ষা রাখে না, পেসার তাসকিনের হাতের চোটটা বোলিং হাতে নয়। ফিল্ডিং করতে গেলে হাতে আবার লেগে যেতে পারে। এ চিন্তায় তাকে প্রথম দুই ম্যাচ খেলানো হয়নি। তবে গত পরশু ২২ জানুয়ারি ম্যাচের আগেও দেখা গেছে দুই হাতে গ্লাভস পরে ক্যাচিং প্র্যাকটিস করছেন তাসকিন। যেহেতু ১১ জানুয়ারি আঙ্গুলে ব্যাথা পাওয়ার পর, কাল (সোমবার) পুরো দু’সপ্তাহ হয়ে যাবে। এখন ঘা শুকিয়ে যাবার কথা। তাই সোমবার খেলায় সে অর্থে ঝুঁকি থাকবে না।

কাজেই সাইফউদ্দীনের সাথে তাসকিনকে খেলানোর সম্ভাবনা খুব বেশি। সামনেই টেস্ট সিরিজ। তারপর নিউজিল্যান্ড সফর। যেখানে দ্রুত গতির বোলার তাসকিনের থাকা এক প্রকার নিশ্চিত।

তার আগে তার বর্তমান ফর্ম দেখে নেয়ার জন্য হলেও তাসকিনকে হয়ত শেষ ম্যাচে পরখ করে দেখবেন নির্বাচক ও টিম ম্যানেজমেন্ট। সে ক্ষেত্রে রুবেল হোসেন আর হাসান মাহমুদের শেষ ম্যাচে একাদশে না থাকার সম্ভাবনা খুব বেশি।

শেষ ওয়ানডেতে বাংলাদেশের সম্ভাব্য একাদশ

তামিম ইকবাল (অধিনায়ক), লিটন দাস, নাজমুল শান্ত, সাকিব আল হাসান, মুশফিকুর রহীম, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, সৌম্য সরকার, মেহেদি হাসান মিরাজ, সাইফউদ্দীন, মোস্তাফিজুর রহমান ও তাসকিন আহমেদ।

https://www.revenuecpmnetwork.com/hsbkfw8q51?key=6336343637613361393064313632333634613266336230363830336163386332

উপরে