মঙ্গলবার, ১৮ মে, ২০২১ | ৪ঠা জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

Logo
Print

হরিরামপুরে দ্বিতীয় ধাপের লকডাউনের প্রথম দিনের হালচিত্র

প্রকাশের সময়: ৫:৫৪ অপরাহ্ণ - বুধবার | এপ্রিল ১৪, ২০২১

currentnews

জ. ই. আকাশ, হরিরামপুর (মানিকগঞ্জ) থেকে : মানিকগঞ্জের হরিরামপুরে দ্বিতীয় ধাপের লকডাউনের প্রথম দিন জনগণকে সরকারি বিধিনিষেধ পালন করাতে মাঠে রয়েছেন উপজেলা প্রশাসন। প্রশাসনের নজরদারির কারণে উপজেলার সবেচেয়ে বড় বাজার ঝিটকা বাজারে বেশিরভাগ দোকান-পাটই বন্ধ রয়েছে। তবে মুদি দোকান, জরুরি পণ্য ও সারসহ কিছু দোকান খোলার পাশাপাশি দু’একটা ভ্যারাইটিস ষ্টোরেরও এক ঝাপ খোলা রেখে ব্যবসয়িক কার্যক্রম করতে দেখা গেছে। মাহে রমজানেরও প্রথম দিন হওয়ায় বাজারের ফলের দোকান ও কাঁচা বাজারে ছিল উপচে পড়া ভিড়। ফলে সেখানে অনেকেই স্বাস্থ্যবিধি মানছে না। বেশির ভাগ ক্রেতা বিক্রেতা  মাস্ক পরিধান করলেও অনেকেরই মাস্ক ছিলো থুতনিতে। এছাড়া সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে কেউ তোয়াক্কাই করেনি।

উপজেলার লেছড়াগঞ্জ, দিয়াবাড়ী, লাউতা, কাণ্ঠাপাড়া বাজারের বেশিরভাগ দোকান বন্ধ থাকলেও জরুরি পন্য, মুদির দোকান ছাড়াও কিছু কিছু দোকানদার সরকারি বিধিনিষেধ অমান্য করে দোকান খোলা রেখেছেন। স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলার কোন বালাই নেই রামকৃষ্ণপুর ইউনিয়নের মানিকনগর বাজারে। সকালের বাজারে বেশির ভাগ ক্রেতা বিক্রেতারাই ছিলেন মাস্ক বিহীন।

এদিকে উপজেলার বলড়া ও ধুলশুরা ইউনিয়নের বাজারগুলিতে সরকারি নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে দোকানপাট খোলা রাখতে দেখা গেছে । বিশেষ করে চায়ের দোকানে আগের মতোই জনসাধারণকে আড্ডা দিতে দেখা যায়। অনেকেই মাস্ক না পরেই অবাধে ঘোরাঘুরি করছে বাজার ও রাস্তাঘাটে।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, উপজেলার ধুলশুড়া ইউনিয়নের বাবুরহাটি গ্রামে খোলা রাখা হয়েছে চা দোকান। নিরাপদ দূরত্ব ও স্বাস্থ্যবিধির তেয়াক্কা না করে উপচে পড়া ভিড় দেখা যায় ওই সবন চা দোকানগুলোতে। এছাড়াও কাশিয়াখালী, নতুন বাজার, গঙ্গারামপুর, কমলাপুর ও ধুলশুড়া বাজারে অসংখ্য দোকানপাট খোলা রাখা হয়েছে।

ঝিটকা বাজার ব্যাবসায়ী সমিতির সভাপতি বেলায়েত হোসেন ভুঁইয়া মুঠোফোনে জানান, বাজার ব্যবসায়ী সমিতির পক্ষ থেকে গতকাল রাতেই মাইকিং করে দোকান বন্ধ রাখার কথা বলা হয়েছে। দোকানদার এবং জরুরি পণ্যের ক্রেতা বিক্রেতার সরকারি বিধিনিষেধ প্রতিপালন করাতে বাজার ব্যবসায়ী সমিতি কাজ করছে বলে তিনি দাবি করেন।

হরিরামপুর থানা ইনচার্জ (ওসি) মুঈদ চৌধুরী জানান, “করোনা মেকাবেলায় লকডাউন যাতে কঠোরভাবে পালন হয়, সে লক্ষ্যে হরিরামপুর থানা পুলিশ প্রতিটি এলাকায় কাজ করে যাচ্ছে।”

হরিরামপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাইফুল ইসলাম মুঠোফোনে জানান , “উপজেলার সবচেয়ে বেশি লোকজনের জমায়েত হয়  ঝিটকা বাজারে। সরকারি বিধিনিষেধ প্রতিপালনে বাজার ব্যবসায়ী সমিতিকে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।  এছাড়া প্রতিটি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও গ্রাম পুলিশকে এ ব্যাপারে নির্দেশনা প্রদান করা হয়েছে। তাছাড়া আজ সকাল থেকে উপজেলার বিভিন্ন স্থানে প্রশাসনের পক্ষ থেকে অভিযান পরিচালনা করে সবাইকে করোনা মহামারির বিষয়ে ও সরকারি নিষেধাজ্ঞা সম্পর্কে অবহিত করা হচ্ছে।”

আইন অমান্যকারীর বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবেও বলে জানান তিনি।

আর্কাইভ

বিজ্ঞাপন

https://www.revenuecpmnetwork.com/hsbkfw8q51?key=6336343637613361393064313632333634613266336230363830336163386332

উপরে