মঙ্গলবার, ১৮ মে, ২০২১ | ৪ঠা জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

Logo
Print

গোলাপগঞ্জের বাঘায় মন্দিরে তরুণীর শ্লীলতাহানীর চেষ্টায় পুরোহিত আটক

প্রকাশের সময়: ৯:৩৮ পূর্বাহ্ণ - শুক্রবার | এপ্রিল ১৬, ২০২১

currentnews

আজজি খান, গোলাপগঞ্জ থকেে : গোলাপগঞ্জের বাঘায় মন্দিরের পুরোহিত কর্তৃক তরুণী ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগে এক ব্যক্তিকে আটক করা হয়েছে। তরুণীর অভিযোগের প্রেক্ষিতে পুরোহিতকে আটক করে থানায় নিয়ে আসা হয়। একজন পুরোহিত কর্তৃক গরীব অসহায় পরিবারের কন্যাকে ধর্ষণের চেষ্টার বিষয়টি বাঘা তথা পুরো উপজেলায় তুলপাড় সৃষ্টি করেছে। ঐ তরুণী ধর্মীয় শিক্ষা লাভের জন্য পুরোহিতের কাছে গিয়ে পুরোহিতের লালসার শিকার হয়েছিল বলে প্রাপ্ত সংবাদে জানা যায়।

গোলাপগঞ্জ উপজেলার বাঘা ইউনিয়নের কালাকোনা গ্রামে শ্রী শ্রী গিরিধারী জিও মন্দিরের পুরোহিত হিসাবে দায়িত্ব পালন করছেন টাংগাইল জেলার দেলদোহার থানার সিলিমপুর গ্রামের কালু চৌহান এর পুত্র প্রাণ গবিন্দ দাস বাবাজি ওরফে ফরেস্ট চৌহান (৪৬)। ধর্মীয় শিক্ষা লাভের জন্য ঐ পুরোহিতের কাছে প্রায়ই যাওয়া আসা করতেন এলাকার তরুণ-তরুণী সহ বিভিন্ন বয়সী হিন্দু ধর্মের অনুসারীরা। মন্দিরের পাশর্^বর্তী বাড়ীর জনৈকা তরুণী অন্যান্য সময়ের মত গত ১৩ এপ্রিল সন্ধ্যা ৭ টায় ধর্মীয় শিক্ষা লাভের জন্য গেলে মন্দিরের পুরোহিত গবিন্দ দাস বাবাজি ওরফে ফরেস্ট চৌহান এর লালসার শিকার হন ঐ তরুণী। পুরোহিত ও তার অপর সহযোগি কালাকোনা গ্রামের চতুল দেবের পুত্র দিপংকর দেব তপন (৩৮) মেয়েটিকে মন্দির থেকে জরুরী কাজের কথা বলে মন্দিরের পাশে নিয়ে যায়। সেখাতে তারা মেয়েটির মুখে চেপে ধরে ধর্ষণের চেষ্টা করলে মেয়েটি তাদের কবল থেকে বাঁচতে ও নিজের সম্ভ্রম বাঁচাতে চিৎকার শুরু করে। এ সময় আশপাশ এলাকার লোকজন ও মেয়েটির আত্মীয়-স্বজন এগিয়ে এসে তাকে অর্ধনগ্ন অবস্থা উদ্ধার করেন। পরে তার তথ্য মতে মন্দিরের পুরোহিত গবিন্দ দাস বাবাজি ওরফে ফরেস্ট চৌহানকে এলাকাবাসী আটক করে গণধোলাই দিলে তরুণীকে ধর্ষণের চেষ্টার বিষয়টি পুরোহিত স্বীকার করেন। এ সময় পুরোহিতের অপকর্মের সাথী দিপংকর দেব তপন পালিয়ে যায়। বিষয়টি গোলাপগঞ্জ উপজেলার বাঘা ইউনিয়ন তথা বিভিন্ন এলাকায় তুলপাড় সৃষ্টি করেছে। এদিকে মেয়ের অভিযোগের প্রেক্ষিতে গবিন্দ দাস বাবাজি ওরফে ফরেস্ট চৌহান ও দিপংকর দেব তপন এর দিরুদ্ধে গোলাপগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে গোলাপগঞ্জ মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ হারুনুর রশীদ চৌধুরী ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন অভিযোগের প্রেক্ষিতে একজনকে আটক করা হয়েছে, অন্যজনকে আটকের চেষ্টা অব্যাহত আছে।

আর্কাইভ

বিজ্ঞাপন

https://www.revenuecpmnetwork.com/hsbkfw8q51?key=6336343637613361393064313632333634613266336230363830336163386332

উপরে