মঙ্গলবার, ২৮ সেপ্টেম্বর, ২০২১ | ১৩ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

Logo
Print

মালয়েশিয়ায় শনাক্ত রোগী ছাড়াল ১০ লাখ

প্রকাশের সময়: ৭:২২ অপরাহ্ণ - রবিবার | জুলাই ২৫, ২০২১

currentnews

দৈনিক আক্রান্তের হিসেবে নতুন রেকর্ডের মধ্য দিয়ে মালয়েশিয়ায় মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা দশ লাখ ছাড়িয়েছে। রোববার আক্রান্ত হয়েছে ১৭ হাজার ৪৫ জন। মহামারি শুরুর পর এ পর্যন্ত দেশটিতে যা একদিনে সর্বোচ্চ কোভিড শনাক্তের রেকর্ড।

এর দু’দিন আগে বৃহস্পতিবার দেশটিতে করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন ১৫ হাজার ৫৭৩ জন। শনিবারের আগ পর্যন্ত সেটি ছিল মালয়েশিয়ায় একদিনে সর্বোচ্চ আক্রান্তের রেকর্ড।

শনিবার করোনায় সর্বোচ্চ আক্রান্তের ঘটনা ঘটেছে মালয়েশিয়ার সেলেনগোর প্রদেশে। প্রদেশটিতে এইদিন নতুন আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ছিল ৮ হাজার ৫০০। এই তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে আছে কুয়ালালামপুর (নতুন আক্রান্ত ২ হাজার ৪৫) এবং তৃতীয় স্থানে আছে কেদাহ (নতুন আক্রান্ত ১ হাজার ২১৬)।

দেশটির কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের তথ্য অনুযায়ী, শনিবারের পর মালয়েশিয়ায় মোট করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা পৌঁছেছে ১০ লাখ ১৩ হাজার ৪৩৮ এর ঘরে এবং বর্তমানে দেশটিতে সক্রিয় করোনা রোগীর সংখ্যা ১ লাখ ৫৩ হাজার ৬৩৬ জন।

মহামারির পর থেকে এ পর্যন্ত মালয়েশিয়ায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৭ হাজার ৯৯৪ জন এবং শনিবার মারা গেছেন ৯২ জন।

করোনার অতি সংক্রামক পরিবর্তিত ধরন ডেল্টার প্রভাবে পৃথিবীজুড়েই বাড়ছে করোনায় আক্রান্ত রোগী ও মৃতের সংখ্যা। তবে সম্প্রতি দক্ষিণ এশিয়ার দেশসমূহে ডেল্টা ধরনটির প্রকোপ অনেক বেশি হচ্ছে।

নিয়ন্ত্রণহীন দৈনিক সংক্রমণ ও মৃত্যুর কারণে ইতোমধ্যে করোনার এশীয় উপকেন্দ্র (এপিসেন্টার) হিসেবে পরিচিতি পেয়েছে মালয়েশিয়ার প্রতিবেশী দেশ ইন্দোনেশিয়া।

তবে সংক্রমণ বাড়তে থাকলেও গণটিকাদান কর্মসূচিতে এশিয়ার দেশসমূহের মধ্যে অন্যতম সফল রাষ্ট্র মালয়েশিয়া। শুক্রবার দেশটির প্রধানমন্ত্রী মুহিউদ্দিন ইয়াসিন এক ফেসবুক পোস্টে বলেছেন, মালয়েশিয়ার প্রাপ্ত বয়স্ক জনসংখ্যার প্রায় অর্ধেককে টিকার আওতায় আনা হয়েছে।

এ ব্যাপারে দেশটির কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, গত জানুয়ারি থেকে মালয়েশিয়ায় টিকাদান কর্মসূচি শুরু হয়েছে এবং ইতোমধ্যে দেশের প্রাপ্তবয়স্ক জনসংখ্যার ৪৬ দশমিক ৭ শতাংশ করোনা টিকার অন্তত একটি ডোজ নিয়েছেন; টিকার দুই ডোজই সম্পূর্ণ করেছেন ২১ দশমিক ৮ শতাংশ।

ফেসবুক পোস্টে মুহিউদ্দিন ইয়াসিন আরও জানান, চলতি বছর অক্টোবরের মধ্যে দেশের সব প্রাপ্তবয়স্বক মানুষকে টিকার আওতায় আনার লক্ষ্য নিয়েছে সরকার।

সূত্র : রয়টার্স, দ্য স্ট্রেইটস টাইমস

আর্কাইভ

বিজ্ঞাপন

https://www.revenuecpmnetwork.com/hsbkfw8q51?key=6336343637613361393064313632333634613266336230363830336163386332

উপরে